17 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২০, ২০২২

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবিনয় নিবেদন – স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি প্রতিরোধ কমিটি গঠন করুন

বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম, প্রকাশক,, জনতারআদালত.কম । ১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ।


সামনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সংসদ নির্বাচন বিতর্কিত করার লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই পাকিস্তানি পরাজিত শক্তির চক্রান্তমূলক জঘন্যতম কাজগুলি দেশবাসীর সামনে দৃশ্যমান। এলাকা ভিত্তিক সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বিভিন্ন ভাবে নানা অজুহাতে সৃষ্টি করে চলেছে স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি। কক্সবাজার রামু, ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নাসির নগরে দাঙ্গা, দিনাজপুরে সাঁওতালদের উপরে অত্যাচার, জ্বালাও পোড়াও আগুন, রংপুরে হিন্দুদের উপর পরিকল্পিত বিএনপি জামাত শিবির পরাজিত শক্তির দাঙ্গা, জ্বালাও পোঁড়াও সবকিছুই কিন্তু পরাজিত শক্তির পরাজয়ের প্রতিশোধ নেবার নেশা। ওদের মতলব স্বাধীনতা সংগ্রামের সুতিকাগার আওয়ামীলীগ সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা। ওদের লক্ষ্য আরেকটা ১৫ই আগষ্ট, ৩রা নভেম্বর, ৭ই নভেম্বর মুক্তিযোদ্ধা সেনাবাহিনীর অফিসার হত্যা, ২১শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলা করে আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করা এবং জননেত্রী শেখ হাসিনাকে জীবনে হত্যা করা।

কিন্তু আজকে জনগনের প্রশ্ন আমরা কি সাংগঠনিকভাবে ওদের ধ্বংসাত্বক কাজগুলি প্রতিরোধ করতে পেরেছি ? নিশ্চয়ই পারি নাই। এটাকি আমাদের ব্যর্থতা নয় ? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার স্বরণে জানাইতে চাই যে, কোন এলাকায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সংগঠিত হলে আমরা চেয়ে থাকি পুলিশের দিকে, পুলিশ আসতে আসতে দাঙ্গাবাজরা তাদের কাজ সমাপ্ত করে চলে যায় কিন্তু আমরা যদি এলাকা ভিত্তিক এসব পাকিস্তানী পরাজিত শক্তিকে চিহ্নিত করে রাখি, তাদের কাজ কর্মের উপর নজর রাখি সর্বোপরি আমরা যদি সাংগঠনিকভাবে ঐক্যবদ্য হইয়া দাঙ্গাবাজদের প্রাথমিকভাবে প্রতিরোধ করি তবে অবশ্যই সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাবাজরা এলাকা ছেড়ে পাকিস্তানীদের মত পালিয়ে যাবে। মতলববাজদের মনবাঞ্চনা কোনদিন পূরণ হবে না। তাই আমার আকুল আবেদন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে প্রত্যেক এলাকায় “[highlight color=”red”]পাকিস্তানী পরাজিত শক্তি প্রতিরোধ কমিটি[/highlight]” গঠন করতে হবে। যেমনি ভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান স্বাধীনতার জন্য গণতন্ত্রের স্বার্থে জনগণের মঙ্গলের জন্য ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানে ঘোষণা করেছিলেন প্রত্যেক এলাকায় আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে সংগ্রাম কমিটি গঠন করার জন্য।

“[highlight color=”blue”]চারিদিকে নাগিনীরা ফেলিতেছে বিষাক্ত নিশ্বাস, শোনাইবে শান্তির ললিত বাণী ব্যর্থ পরিহাস[/highlight]”। আগেই বলেছি সামনে নির্বাচন সম্পূর্ণ কুলুষমুক্তভাবে নির্বাচন করে সারা বিশ্বে আপনার মুখ উজ্জ্বল হোক এটাই আমাদের আশা। কিন্তু পাকিস্তানী পরাজিত শক্তির প্রতিভূ ছলনাময়ী, একই অঙ্গে এত রূপ যার রূপে নেই কোন দেশ প্রেম, নেই কোন মানবতাবোধ, নেই কোন শান্তির বার্তা, আছে শুধু হিংসা-বিদ্বেষ, দেশের সম্পদ বিদেশে পাচার করা, গুরুজনকে অশ্রদ্ধা করা, দেশের মানুষের সাথে বেইমানী করা। জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের সবচেয়ে সফলতম প্রধানমন্ত্রী যাহা দেশবাসীও জানে এবং সারাবিশ্বও জানে ।

বেগম খালেদা জিয়া কোন্ সময় কোন্ জায়গায় কি অঘটন ঘটান বুঝা বড়ই মুশকিল। তাই জাতিকে সাবধান থাকতে হবে, জাতিকে ওদের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে, ঘরের শত্রু বিভীষনদের দিকে নজর রাখতে হবে, হাইব্রিড আওয়ামীলীগার ও প্রশাসনে লুকিয়ে থাকা পরাজিত শক্তির এজেন্টদের চিহ্নিত করতে হবে।

পরিশেষে মাননীয় জননেত্রী শেখ হাসিনা, আমরা মুক্তিকামী জনতা আপনার কাছে আশা করছি আগামী ১৮ই নভেম্বর ঐতিহাসিক  সোহরওয়ার্দি   উদ্যানে নাগরিক সমাবেশে “[highlight color=”red”]পাকিস্তানী পরাজিত শক্তি প্রতিরোধ কমিটি[/highlight]” নামে কর্মসূচি ঘোষণা দিয়ে স্বাধীনতা, গনতন্ত্র ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী সৈনিকদের উজ্জিবিত করবেন এবং পাকিস্তান পন্থি দানবদের হাত থেকে রক্ষা করবেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সাথে থাকুন

13,562FansLike
5,909FollowersFollow
3,130SubscribersSubscribe

সর্বশেষ